ঢাকাSunday , 27 March 2022
  1. blog
  2. অপরাধ
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক খবর
  5. আবহাওয়া
  6. ইসলাম
  7. কুয়াকাটা এক্সক্লুসিভ
  8. খেলাধুলা
  9. জনদুর্ভোগ
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. তথ্যপ্রযুক্তি
  13. দূর্ঘটনা
  14. বিনোদন
  15. রাজনীতি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কলাপাড়ায় বিদ্যুৎ দেয়ার নামে লক্ষাধীক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি চক্র ৮৪ পরিবারের অভিযোগ ॥

rabbi
March 27, 2022 1:37 pm
Link Copied!

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ

কলাপাড়া উপজেলার মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ৮৪ পরিবারের কাছ থেকে বিদ্যুৎ দেয়ার নামে একটি চক্র প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়াগেছে। ২৭ মার্চ সকাল ১০টার দিকে মোঃ রেজাউল করিম জানান, দীর্ঘ ৩ বছর পরে খুটি ও তারের লাইন টানলেও দেড় বছর পেরিয়ে যাচ্ছে শুধু মিটারের অপেক্ষায়। আজ কাল বলে ঘুরাতে থাকলেও অদ্যবদি কোন মিটার না পেয়ে স্থানীয় চক্র হাড়িপাড়া গ্রামের জয়নাল প্যাদার পুত্র মোঃ সুজন ওরফে সুজল প্যাদার মাধ্যমে টাকা লেনদেন হয়েছে। সুজল প্যাদা বিদ্যুতের খুটি বাবদ ১ এক হাজার, তার বাবাদ ২ দুই হাজার, ওয়ারিং বাবাদ ৮ শত ও মিটার বাবদ ৬ শত টাকা করে প্রতিটি পরিবারের কাছ থেকে উত্তোলন করে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

ভুক্তভোগী মাসুম শিকদার জানান, সুজন ওরপে সুজল প্যাদাকে মিটার দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে গত ২৩ মার্চ ৪৬ পরিবারের নামে মিটারের রিসিভ কপি দেয়। উক্ত রিসিভ কপি নিয়ে ওই নাম এবং ক্রমিক নম্বরের সাথে কম্পিউটারের সার্ছিং দিলে পাওয়া যায়নি।

এমন ঘটনার প্রেক্ষিতে ২৭মার্চ কলাপাড়া বিদ্যুৎ জোনাল অফিসে ডি জি এম সজিব পাল’র কাছে মিটারের রিসিভ কপি নিয়ে যাওয়া হলে তিনি নিজেই জাচাই করেন এবং ভুয়া ও জাল জালিয়াতি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হন। পরে তিনি জানান, এ ঘটনায় নিজেই রিতিমতো আর্শ্চজ্য হয়েছেন, এবং এ জালিয়াতি চক্রের বিরুদ্ধে অফিসিয়ালি ভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন। তবে জালিয়াতি চক্রের সাথে বিদ্যুৎ অফিসের কেউই সংশ্লীষ্ট নয়। পরিশেষে তিনি জনসাধারণের উদ্দেশ্যে বলেন, যাদেরই বিদ্যুৎ কিংবা মিটার প্রয়োজন তারা যেনো সরাসরি বিদ্যুৎ অফিসে এসে যোগাযোগ করেন। এ ছাড়া বহিরাগত ভাবে কারো সাথে যোগাযোগ করে প্রতারিত হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবেনা।

এব্যাপারে অভিযুক্ত সুজন ওরপে সুজল প্যাদা জানিয়েছেন, তিনি বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী এলাকার মাসুম নামের এব ব্যাক্তির সাথে দীর্ঘদিনের পরিচয় থাকায় অর্থনৈতিক লেন দেন তার মাধ্যমে করেছেন। অপর দিকে মাসুম জনিয়েছেন, কলাপাড়া চৌরাস্তা সংলগ্ন নাচনা পাড়া গ্রামে ইলেক্ট্রিশিয়ান আরিফ এর সাথে টাকার লেনদেন করেছেন। আরিফ মিটার দিবে বলে জালিয়াতি করেছে বর্তমানে ওই ইলেক্ট্রিশিয়ান আরিফের মুঠোফোনে কল দিলে রিসিভ করছেনা। ফলে প্রতিয়মান হয় ওই তিন জনই অর্থ আত্মসাত ও জালিয়াতি চক্রের মুল। এ ঘটনায় কলাপাড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

কলাপাড়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, অভিযোগ পেয়েছেন ব্যবস্থা নিতেছেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
x