ঢাকাThursday , 5 May 2022
  1. blog
  2. Mail Order Brides
  3. Online dating
  4. অপরাধ
  5. আইন আদালত
  6. আন্তর্জাতিক খবর
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. কুয়াকাটা এক্সক্লুসিভ
  10. খেলাধুলা
  11. জনদুর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্যপ্রযুক্তি
  15. দূর্ঘটনা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মহিপুরে ইউপি নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের জাচাই-বাছাই

rabbi
May 5, 2022 3:51 pm
Link Copied!

মোঃ হাবিবুল্লাহ খান রাব্বী :

মহিপুরে ইউপি নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা গ্রহণ প্রাথমিক পর্যায় শুরু হবে। ৫ মে ২২ইং সকাল ১০টায় উপজেলার ৯নং ধূলাসার ইউনিয়নে। দুপুরের ভোজন শেষে ৭নং লতাচাপলী ইউনিয়নের তালিকা জাচাই বাচাই করা হবে।

জাচাই-বাচাইয়ে কি কাউন্সিলর স্বচ্ছ থাকবে! না ভিন্ন ভাবে প্রভাবিত হবে । এ নিয়েও শংকায় রয়েছে অনেকে। মন্তব্যের ছোড়া-ছুড়িতে সরগড়ম চায়ের আড্ডা। এক দিকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ অন্যদিকে নির্বাচনী হাওয়া। ঈদ ও নির্বাচনের ইমেজ নিয়ে দুই ইউনিয়নের সাধারণরা আনন্দ মুখর পরিবেশে সময় কাটাচ্ছে। আর মন্তব্যের থলিতে- দলীয় সভ্যতা বিলুপ্তির দিকে ধাপিত হচ্ছে, দলীয় নেতাকর্মীদের অমূল্যায়নের ফলে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা সমর্থন কিনতে মরিয়া।

আবার অনেকে আছেন হুমকীর মুখে, কেউ মন্ত্রীর গ্রুপ, কেউ এম পির গ্রুপ, কইতেও পারেনা আর সইতেও পারেনা। গরুর হাটের মতোই দর উঠবে ডেলিগেটদের। তবে দলীয় ভাবে প্রার্থীর চুড়ান্ত ফলা ফল প্রকাশের পর সর্বোচ্চ অংক জানা যাবে, তাও লোক চক্ষুর অন্তরাল থেকে দেয়ালেরও কান আছে এমন প্রবাদের বাস্তবতা উম্মোচন হবে। অর্থ লেন দেনের প্রতক্ষদর্শী সত্য স্বাক্ষী দেবে কিন্তু প্রান হাড়ানোর ভয়ে ক্যামেরার আড়ালে। এব্যাপারে আপনিও মাঠে গেলে অর্থ লেন দেনের বিষয়টি স্পষ্ট হবেন কিন্তু আইনের শাসনে স্বাক্ষী পাবেননা।
ক. ইউনিয়নের ডেলিগেটের গোপন ভোটে, খ. প্রকাশ্যে হা/না, গ. দলের ত্যাগি নেতাকর্মীদের মূল্যায়নে, ঘ. দলের সুবিধা নিয়ে চেয়ারম্যান হয়েছেন/এখনো আছেন, ঙ. কালো অধ্যায়ের সৃষ্টি করবে এমন কারো নাম আসতে পারে বলে নানান গুনজন চলছে নির্বাচনী এলাকায়।

দলের বহু নেতারা ইতোপূর্বে ডেলিগেটে ছিলেন কিন্তু বর্তমানে ত্যাগি নেতাকর্মীদের ভোট থেকে বাদ দিয়ে ক্ষমতালোভীরা নিজেদের মতো করে ভোটার সাজিয়েছেন, এমন অভিযোগ ইউনিয়ন আ’লীগের একনিষ্ঠ প্রবীন আ’লীগ নেতাদের। তারা বলেন, ইউনিয়ন আ’লীগের দলীয় ভাবে সাংগঠনিক নিয়মে স্বচ্ছতায় এগিয়ে থাকলেও দীর্ঘ বছর ধরে কোনঠাশা করে রেখেছেন ওরা।

এক সঙ্গের চলার সাথি তারা, একের পর একজনকে মেম্বর ও চেয়ারম্যান বানানোর প্রতিশ্রুতি নিয়েই তখন ১-১১’র স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের প্রতিবাদ, জামাত বি এন পি’র মিথ্যা মামলা হামলার শিকার হয়েছি। অনেক তিক্ততার পর অনেক অনেক তীব্র অবিজ্ঞতার সঞ্চয় থেকে বলেন, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ একাধীকবার একজনকেই মনোনয়ন দিয়ে যাচ্ছে, তারা কি! মনে করেণ ইউনিয়ন ভিত্তিক দুই, চার-পাঁচ জনের বেশী মনে হয় নেতা নাই।

নছেৎ দেখা গেছে যোগ্য অযোগ্য হিসাব ছাড়াই দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন এবং জনগণের প্রতিনিধিও একাধিকবার বানিয়ে নিয়েছেন। কিন্তু জ্ঞানী-গুনি, গ্রাম্য বিচারিক জ্ঞানও ভালো, দলের ত্যাগী নেতা, কর্মীদরদী ও বটে, তবে টাকা না থাকায় দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ার অভুক্ত বেদনায় বিদুর বহুজন। অনেক স্বপ্ন আর আকাঙ্খা ভেঙ্গে গুরিয়েতো দিয়েছেই তবু ক্ষ্যান্ত নয়, নানা ধরণের প্রতিতিশ্রুতি বায়না ধরে, হাতে হাত রেখে শফত করা কেউবা ধর্মগ্রন্থ ছুয়ে সফত নিয়ে রাজনীতির মাঠে এক সঙ্গে চলার সাথী, বিরোধীয় দলীয় নেতাদের নির্যাতনের শিকার, হামলা,মাললা ও কারা বরণ করে সাংসারিক জীবনে অসচ্ছলতার সাথে যুদ্ধ করে খেয়ে না খেয়ে দলীয় মিটিং, চেটিংয়ের মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পর্যায় বঙ্গবন্ধুর নৌকার ভোটার ও কর্মী সৃষ্টি করতে সফল হয়েছিলেন, আজ সেই সাথীরা ক্ষমতা, জনগণের প্রতিনিধিত্ব পেয়ে এমনই লালশায়িত হয়েছে পরবর্তীতেও ক্ষমতা, অন্য বন্ধু বা দলীয় নিয়মে পেয়ে যাওয়া ওই ভাগ্যবান নেতাকে ষড়যন্ত্রের নীল নকশায় হত্যা পর্যন্ত করতে দ্বিধা করছেনা। বহু মায়ের কোল খালি হতে দেখে এখন রাজনীতির নামে যে অপরাজনীতির মহাউৎসব চলছে, এতে মনের মধ্যে চড়ম ভাবে ঘৃনা জমছে।

সর্বশেষ শান্তনার বানী এভাবেই প্রকাশ করছেন, বঙ্গবন্ধুকে ভালো বেসে তার দল করেছেন এখনও করবেন এবং ভবিষ্যতেও করবেন। দলীয় নেতার দ্বারা নির্যাতীত হয়েও নিজে মনোনয়ন না পাওয়ার বেদনা যতোই আসুক, দল পরিবর্তন করা তার পক্ষ্যে মোটেই সম্ভব নয়, দল যাকেই মনোনয়ন দিবেন তার দিকে নাইবা তাকালেন, ভোটের দিন বঙ্গবন্ধুর নৌকায় একটা ভোট দিয়ে নিরিবিলি বাসায় চলে যাবেন, এভাবেই গণমাধ্যমের সাথে মনের ভাব প্রকাশ করে নিজেকে শান্তনা দেয় বঙ্গবন্ধুর প্রেমীরা।

উন্নয়নের রুপকার বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় বাস্তবাবায়নের সফল নেতা বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় সুযোগ্য সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি দলের ত্যাগী নেতা কর্মীদের মূল্যায়ন করবেন এবং করতেছেন। কিন্তু দেশের আসন ভিত্তিক এম পি, মন্ত্রীরা দলের হাই কমান না মেনে দলের মধ্যে গ্রুপিং সৃষ্টি করছে। দলের সমন্বয়তো দুরের কথা, লালশার থলীতে কালো অর্থের পাহাড় গড়ছে। যার বিচার কেউ করার নাই। এম পি, মন্ত্রী হয়ে রাজ্যের দিচ্ছে রাজস্ব্য ফাকি ও দলের খেয়ে দলের সাথে বে-ঈমানি করছে। ফলে ছোট ছোট শহর ও গ্রাম কেন্দ্রীক সাধারণ ত্যাগী নেতাকর্মীরা মূল্যায়িত হচ্ছেনা বিপরীতে রীতিমতো নির্যাতিত হচ্ছে।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক তফসিল অনুযায়ী ১৫ জুন ২০২২ খ্রিঃ কলাপাড়া উপজেলার ৯নং ধুলাসার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে । উক্ত নির্বাচন উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ২৮(৩) ধারা মোতাবেক ০৫ মে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত আলহাজ্ব জালাল উদ্দীন ডিগ্রি কলেজ ধুলাসারে দলীয় তৃনমূলে ভোটের মাধ্যমে চেয়ারম্যান প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ০৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী তৃনমূল ভোটে অংশগ্রহণ করেন। তৃণমূলে(ধুলাসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কমিটির সদস্য সংখ্যা) মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৭৭ জন। তন্মধ্যে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান প্রার্থী মোদাচ্ছের হোসেন,সাধারণ সম্পাদক, ধুলাসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, পেয়েছেন ৪৯ভোট, মোঃ আঃ জলিল, সদস্য ধুলাসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, পেয়েছেন ০৬ ভোট, হারুন অর রশিদ তালুকদার, সভাপতি, বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিপুর থানা শাখা পেয়েছেন ১৯ ভোট।

যেমন কথা তেমন কাজ বিকাল ৩টার দিকে লতাচাপলী ইউনিয়নেও একওই ভাবে প্রার্থী বাছাইয়ে তৃনমূলের গোপন ভোট নেয়া হয়েছে। এখানেও ৩ জন প্রার্থী ছিলেন, ভোটার সংখ্যা ছিলো ৬৬ জন। মোঃ আনছার উদ্দিন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক, লতাচাপলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, পেয়েছেন ৪৩ ভোট, ডাঃ সিদ্দিকুর রহমান বিশ্বাস, সভাপতি লতাচাপলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, পেয়েছেন ১১ ভোট, মোঃ কালাম ফরাজী, সভাপতি, বাংলাদেশ শ্রমীকলীগ, মহিপুর থানা শাখা পেয়েছেন ১৩ ভোট।

দলীয় মনোনয়ন “নৌকা প্রতীক”র মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নামের তালিকা কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, কেন্দ্রীয় মনোনয়ন কমিটির নিকট প্রেরণ করবেন।

এ সময় তৃনমুলে প্রার্থী বাছাই কাউন্সিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাজী আলমগীর, সভাপতি, পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভিপি আবদুল মান্নান, সাধারণ সম্পাদক, পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ, উজ্জ্বল বোস, সাংগঠনিক সম্পাদক, পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ, মোঃ মহিববুর রহমান মহিব, মাননীয় সংসদ সদস্য পটুয়াখালী-৪, মোঃ মাহবুবুর রহমান তালুকদার, সভাপতি, কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ মোতালেব তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, এ্যাডঃ ড. শামীম আল সোহাগ, সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি, বিপুল হালদার, মেয়র কলাপাড়া পৌরসভা, মোঃ শফিকুল আলম বাবুল খান (ভাইস চেয়ারম্যান) সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ আ’লীগ কলাপাড়া উপজেলা শাখা প্রমুখ।

তৃনমুলে প্রার্থী বাছাই কাউন্সিল বিকাল ৫টার দিকে বিশৃঙ্খলা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
x